এদেশের সংগীতের উজ্জ্বল নক্ষত্র এন্ড্রু কিশোর। তাকে বলা হয় প্লেব্যাক সম্রাট। সিনেমার গানে তার কণ্ঠ কিংবদন্তি হয়ে থাকবে চিরদিন। বহু কালজয়ী গান তিনি রেখে গেছেন শ্রোতা-ভক্তদের জন্য।

৬ জুলাই না ফেরার দেশে চলে গেছেন এই নন্দিত গায়ক।মৃত্যুর পর আজ আবারও ফিরে এলেন তিনি সবার মাঝে বেদনা-বিষাদ মাখা জন্মদিনে। আজ ৪ নভেম্বর এন্ড্রু কিশোরের জন্মদিন।

মৃত্যুর পর এন্ড্রু কি‌শো‌রের এটাই প্রথম জন্মদিন। প্রয়াত এই সংগীত‌শিল্পীর জন্ম‌দিন উপল‌ক্ষে প‌রিবা‌রের কো‌নো আ‌য়োজন নেই ব‌লে জা‌নি‌য়ে‌ছেন তার স্ত্রী লি‌পিকা এন্ড্রু। তি‌নি ব‌লেন, ‘এন্ড্রু কিশোরের জন্য সবাই দোয়া কর‌বেন। এটাই তার জন্য, তার বিদেহী আত্মার জন্য কাজে লাগবে।’

এদিকে জানা গেছে এন্ড্রু কি‌শোরের জন্ম‌দিন উপলক্ষে শিল্পীর জন্মস্থান রাজশাহীতে ওস্তাদ আবদুল আ‌জিজ স্মৃ‌তি সংসদ না‌মে এক‌টি সংগঠন দিনব্যাপী ‘কন্ঠরাজ এন্ড্রু কি‌শোর জ‌ন্মোৎসব’ শি‌রোনা‌মে এক‌টি উৎস‌বের আ‌য়োজন ক‌রে‌ছে। রাজশাহীর স্থানীয় এক রে‌স্তোরায় অনু‌ষ্ঠিতব্য এ আ‌য়োজ‌নে র‌য়ে‌ছে জ‌ন্মোৎস‌বের কেক কাটা, তা‌কে নি‌য়ে স্মৃ‌তিচারণ ও তার গাওয়া গান নি‌য়ে সংগীতানুষ্ঠান।

আ‌য়োজ‌নে সংগঠ‌নের সদস্যসহ এন্ড্রু কি‌শোর ভক্তরা উপ‌স্থিত থাক‌বেন ব‌লে জা‌না গে‌ছে।

প্রসঙ্গত, ওস্তাদ আবদুল আজি‌জ বাচ্চুর কা‌ছে গান শি‌খে‌ছি‌লেন এন্ড্রু কি‌শোর। জীবদ্দশায় রাজশাহী‌ নি‌জের বা‌ড়ি‌তে বেড়া‌তে গে‌লে শহ‌রের বেলদারপাড়া অব‌স্থিত ওস্তা‌দের না‌মে গড়া এই সংগঠ‌নে ও সুরবানী গা‌নের স্কু‌লে কিছুটা সময় কাটা‌তেন অ্যান্ড্রু কি‌শোর।

১৯৫৫ সালের ৪ নভেম্বর জন্মগ্রহণ করা এন্ড্রু কিশোর সিনেমার প্লেব্যাক শুরু করেন ১৯৭৭ সালে আলম খানের সুরে ‘মেইল ট্রেন’ ছ‌বি‌তে ‘অচিনপুরের রাজকুমারী নেই যে তার কেউ’ নামের গান দিয়ে। প্রায় চার দশক সিনেমার গান গেয়েছেন তিনি। স্বীকৃ‌তিস্বরুপ পে‌য়ে‌ছেন আটবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার।