ক্রীড়া প্রতিবেদক:দাপুটে জয়ে ঠিকই ফাইনালে পৌঁছে গেছে রোহিত শর্মার মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। ৫ম বারেরমত শিরোপার হাতছানি তাদের সামনে। ১১ নভেম্বর মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের মুখোমুখি হবে কারা, সেটা অবশ্য এখনও নির্ধারিত হয়নি।

বৃহস্পতিবার রাতে দিল্লি ক্যাপিটালসকে এক কথায় উড়িয়ে দিয়েই ফাইনালে উঠলো মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। দিল্লিকে তারা হারিয়েছে ৫৭ রানের ব্যবধানে। ২০১ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ১৪৩ রানেই থেমে যায় দিল্লি।

আইপিএলের কোয়ালিফায়ারে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই’ই প্রত্যাশিত ছিল সবার। কিন্তু তার কিছুই হলো না। বরং অশ্বিনের বলে শূন্য রানে মাঠ ছেড়ে দিল্লির বিপক্ষে এক লজ্জার রেকর্ড গড়লেন মুম্বাই অধিনায়ক রোহিত শর্মা।

আইপিএলের ইতিহাসে চতুর্থ সর্বোচ্চ রানের মালিক রোহিত; কিন্তু প্লে-অফে বরাবরই তার গ্রাফ মন্দ। ১৯ ইনিংসে তার সংগ্রহ মোটে ২২৯ রান। গড় ১২.৭২। সেই ফাঁড়া এবারও কাটল না।

বৃহস্পতিবার অজান্তেই লজ্জার একটি রেকর্ড গড়ে ফেললেন আইপিএলের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক রোহিত শর্মা। টুর্নামেন্টে সবচেয়ে বেশি শূন্য রানের পাশে লেখা হলো তার নাম।

আইপিএলে এই নিয়ে ১৩ বার কোনো রান না করেই প্যাভিলিয়নে ফিরলেন রোহিত। একই রেকর্ড রয়েছে চেন্নাইয়ের হরভজন সিং ও রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর পার্থিব প্যাটেলেরও।

‘আনলাকি ১৩’ সংখ্যাটিই মুম্বাইয়ের ফাইনালে পৌঁছনোর পথ দুর্গম করে দিতে পারেনি। কারণ, হার্দিক পান্ডিয়া আর ইশান কিশানের ব্যাটিং ঝড়ে মুম্বাইর সংগ্রহ দাঁড়িয়েছিল ২০০ রান। জবাবে ৫৭ রানে হেরে যায় দিল্লি। তবে প্রশ্ন উঠছে, হ্যামস্ট্রিংয়ের চোট সারিয়ে রোহিত সম্পূর্ণ ফিট তো? কারণ পরপর দুটি ম্যাচেই ব্যর্থ তিনি।