স্পোর্টস ডেস্ক:স্পেজিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে ইনজুরি কাটিয়ে মাঠে ফিরেছিলেন জুভেন্টাসের পর্তুগিজ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। সেদিন জোড়া গোল করে পরপর দুই ম্যাচ ড্র করা জুভেন্টাসকে জয়েও ফিরিয়েছিলেন তিনি। গোল করলেন পরের ম্যাচেও কিন্তু এবার জিততে পারেনি জুভেন্টাস। সঙ্গে যোগ হয়েছে আরেক চোট।

রোববার রাতে লাজিওর বিপক্ষে ম্যাচের শুরুর দিকেই গোল করেন রোনালদো। কিন্তু শেষপর্যন্ত যেতে যেতে আর হাসি টেকেনি মুখে। প্রথমত, ফের চোট পেয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে রোনালদোকে। এরপর আবার ম্যাচের একদম শেষ শটে হাতছাড়া হয়েছে মূল্যবান ২টি পয়েন্ট।

অর্থাৎ ফের ইনজুরিতে পড়েছেন রোনালদো এবং ম্যাচটিও জিততে পারেনি জুভেন্টাস। ম্যাচের একদম শেষ মিনিটে গোল করে তুরিনের বুড়িদের রুখে দিয়েছে স্বাগতিক লাজিও, ম্যাচ হয়েছে ১-১ গোলে ড্র। সিরি ‘আ’য় সবশেষ পাঁচ ম্যাচে জুভেন্টাসের এটি তৃতীয় ড্র। যে কারণে পয়েন্ট টেবিলেও ওপরের দিকে যেতে পারছে না তারা।

লাজিওর মাঠে ম্যাচের অষ্টম মিনিটেই দারুণ এক সুযোগ পেয়েছিলেন রোনালদো। তবে জায়গা বানিয়েও দুর্বল শট নেন তিনি। পরের মিনিটে আদ্রিয়ান র‍্যাবিয়টের শট ঠেকিয়ে দেন লাজিও গোলরক্ষক। তবে গোলের জন্য বেশি অপেক্ষা করতে হয়নি জুভেন্টাসকে।

কেননা ১৫ মিনিটের সময় হুয়ান কুয়াদ্রাদোর বাড়ানো ক্রস থেকে ছয় গজের বক্সে দাঁড়িয়ে সহজেই বল জালে জড়ান রোনালদো। প্রথমার্ধে আরও বেশ কিছু দারুণ সুযোগ পেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু কখনও বারপোস্ট, আবার কখনও গোলরক্ষক বাধা হয়ে দাঁড়িয়ে গেলে আর গোল পাওয়া হয়নি তার।

ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধ আবার নিয়ন্ত্রণ করে লাজিও। প্রথমার্ধে লক্ষ্য বরাবর সাতটি শট করলেও কোনোটিই তেমন পরীক্ষা নিতে পারেনি জুভেন্টাস গোলরক্ষককে। দ্বিতীয়ার্ধেও তারা ভুগতে থাকে ফিনিশিং ব্যর্থতায়। এরই মাঝের ম্যাচের ৭৬ মিনিটের সময় চোট পান রোনালদো। খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে মাঠ ছেড়ে যান তিনি।

রোনালদোর বদলি হিসেবে মাঠে নামানো হয় পাওলো দিবালাকে। তার উপস্থিতি ম্যাচে জুভেন্টাসের খেলায় তেমন কোনো প্রভাব ফেলতে পারেনি। উল্টো অতিরিক্ত যোগ করা সময়ের একদম শেষ মুহুর্তে গোল হজম করে তারা। ফেলিপ সাইসেডোর গোলে ১টি পয়েন্ট নিশ্চিত করে লাজিও।

এ ড্রয়ের ফলে ৭ ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে ৫ নম্বরে অবস্থান করছে জুভেন্টাস। সমান ম্যাচে ১৭ পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরে এসি মিলান।