স্পোর্টস ডেস্ক:অস্ট্রেলিয়া সফরে প্রথম টেস্ট খেলেই দেশে ফিরবেন বিরাট কোহলি। খেলতে পারবেন না শেষ তিন টেস্টে। সন্তানসম্ভবা স্ত্রী আনুশকা শর্মার পাশে থাকবেন বলে ছুটি নিয়েছেন ভারতীয় অধিনায়ক।

যেহেতু কোহলি ওই তিন টেস্ট খেলবেন না, স্বভাবতই নিয়ম অনুযায়ীই দায়িত্ব পাচ্ছেন সহ-অধিনায়ক আজিঙ্কা রাহানে। তবে ভারতের সাবেক অলরাউন্ডার ইরফান পাঠানের তাতে ঘোর আপত্তি। তিনি মনে করেন, টেস্টে কোহলির অনুপস্থিতিতে রাহানেকে নয়, অধিনায়ক বানানো উচিত রোহিত শর্মাকে।

রোহিত শর্মা অবশ্য এই সফরেই ছিলেন না। কোহলির সরে যাওয়ার পর নতুন করে দল গুছিয়েছে ভারত। তাতে টেস্ট দলে যুক্ত হন হ্যামস্ট্র্রিংয়ের চোট নিয়ে ঝামেলায় থাকা রোহিত।

সীমিত ওভারের ক্রিকেটে অপরিহার্য হলেও রোহিত অবশ্য ভারতের টেস্ট দলে এখনও প্রথম পছন্দ হতে পারেননি। তবে পাঠান মনে করেন, বড় মঞ্চে নেতৃত্ব দেয়ার অভিজ্ঞতাই তাকে এগিয়ে রাখবে।

অস্ট্রেলিয়া টেস্ট সিরিজে কোহলির জায়গা পূরণ করা কঠিন হবে মানছেন ইরফান পাঠান। তিনি বলেন, ‘বিরাট কোহলির না থাকা দলে বড় প্রভাব ফেলবে। কিন্তু তার সিদ্ধান্তের প্রতি সম্মান রাখা উচিত। আমাদের এটা মেনে নিতে হবে, ক্রিকেটের চেয়ে জীবন এবং পরিবার বেশি গুরুত্বপূর্ণ।’

ভারতের সাবেক অলরাউন্ডার যোগ করেন, ‘মাঠে বড় পার্থক্য দেখা যাবে, তার জায়গা পূরণ করা খুবই কঠিন হবে। যেভাবে সে বছরের পর বছর পারফর্ম করে চলেছে, সব কন্ডিশনে।’

পাঠানের মতে, কোহলির বদলে রাহানে নয়, রোহিতকে নেতৃত্ব দেয়াটা সঠিক সিদ্ধান্ত হবে। রোহিতের অধীনে আইপিএলে চারবার শিরোপা জিতেছে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। ভারত জিতেছে নিদাহাস ট্রফি আর এশিয়া কাপ।

ইরফান পাঠান বলেন, ‘রাহানের বিপক্ষে বলছি না। তবে রোহিতকে অধিনায়ক দেয়া উচিত। সে পরীক্ষিত নেতা। যেমন অভিজ্ঞতা দরকার সেটা তার আছে। ওপেনার হিসেবে তার ভূমিকাও সমানভাবে গুরুত্বপূর্ণ। সে এমন একজন, যে কিনা অস্ট্রেলিয়া খেলতে চায়। আমার মনে আছে ২০০৮ সালে ওয়ানডে সিরিজের কথা। তখন সে নবীন ছিল, কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার পিচে বেশ ভালো খেলে। ক্ষুধার্ত রোহিত শর্মার চেয়ে বিপদজনক কিছু হতে পারে না প্রতিপক্ষের জন্য।’