ধর্ম ডেস্ক:ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জ্যান ইয়ভেস লে ড্রিয়ান। তিনি ইসলাম ধর্মকে সম্মান করেন। হজরত মুহাম্মাদুর রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে অপমান করার প্রতিবাদে সম্প্রতি বিশ্বব্যাপী প্রতিবাদ ও বয়কটের মুখোমুখি ফ্রান্স ও দেশটির প্রেসিডেন্ট অ্যামানুয়েল ম্যাক্রো। এ সময়টিতে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী জ্যান ইয়ভেস লে ড্রিয়ান ইসলাম ধর্মকে শ্রদ্ধা ও সম্মান করেন বলে ঘোষণা দেন। খবর রয়টার্স।

গত ৮ নভেম্বর মিসরের কায়রোতে আল-আজহারের গ্র্যান্ড মুফতি শেখ আহমেদ আল-তায়েবের সঙ্গে এক সংবাদ সম্মলেনে ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইসলাম ধর্মকে সম্মান জানানোর কথা উল্লেখ করেন। তিনি সাংবাদিকদের কাছে ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে তার বক্তব্য তুলে ধরেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের প্রথম নীতি হচ্ছে ইসলামের প্রতি সর্বোচ্চ শ্রদ্ধা দেখানো। আমি এটাও বলতে চাই যে, ফ্রান্সের মুসলমানরা আমাদের সমাজের পরিপূর্ণ অংশ।

তিনি বলেন, দেশের মধ্যে সন্ত্রাসবাদ আমাদের জন্য হুমকি। ধর্মান্ধতার উর্ধ্বে ওঠে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণ দেশটির একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া।

তিনি ইসলামকে শ্রদ্ধা ও সম্মান করেন এবং মুসলমানদের অনুভূতিতে আঘাত আসে এমন সব কাজের বিরোধী বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

ফ্রান্স তাদের বিভিন্ন আচার-আচরণে ভারসাম্য, সহনশীলতা এবং সংযমের কণ্ঠস্বর হওয়া খুবই জরুরি বলেও আল-আজহারের গ্র্যান্ড ইমামকে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জ্যান ইয়ভেস লে ড্রিয়ান।

ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ সফরে মিসরের রাষ্ট্রপতিসহ দেশটির সর্বোচ্চ প্রতিষ্ঠান আল-আজহারের গ্র্যান্ড মুফতির সঙ্গেও সৌজন্য সাক্ষাত করেন। আল ফাতাহ সিসি ও গ্র্যান্ড মুফতির সঙ্গে ইসলাম ও মুসলমানদের ব্যাপারে সুন্দর এ মন্তব্য করেন।