সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরের উকিলপাড়ায় ‘জঙ্গি আস্তানা’ সন্দেহে একটি বাড়িতে অভিযান চালাচ্ছে র‌্যাব। সেখান থেকে চার সন্দেহভাজন জঙ্গি আত্মসমর্পণ করেছে বলে র‌্যাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। এর মধ্যে একজনের নাম কিরণ। বাকিদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি। শুক্রবার (২০ নভেম্বর) সকাল পৌনে ১১টার দিকে র‌্যাব সদর দফতরের বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট বাড়িটিতে ঢুকে কাজ শুরু করেছে।.

 

এর আগে বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) রাতে রাজশাহী থেকে জামায়াতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশের (জেএমবি) সদস্য সন্দেহে চার জনকে আটক করে র‌্যাব। তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার উকিলপাড়ায় শিক্ষক ফজলুল হকের ওই বাড়িতে অভিযানের প্রস্তুতি নেওয়া হয়। শুক্রবার ভোর ৫টা থেকে বাড়িটি ঘিরে রাখে র‌্যাব-১২ এর সদস্যরা। র‌্যাব সদর দফতরের বোম্ব ডিসপোসাল ইউনিট সকাল ১০টা ৫০মিনিটে ওই বাড়িতে ঢুকে অভিযান শুরু করে।.

 

র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের প্রধান লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, বৃহস্পতিবার রাতে রাজশাহী মহানগরীর শাহ মখদুম থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে চার জঙ্গিকে আটক করা হয়। এদের মধ্যে নব্য জেএমবির রাজশাহী অঞ্চলের প্রধান মাহমুদও রয়েছে। আটকের পর তাদের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে শাহজাদপুরে র‌্যাবের অভিযান চলে।.

সিরাজগঞ্জের র‌্যাব-১২ এর ভারপ্রাপ্ত কোম্পানি কমান্ডার মুহাম্মদ মহিউদ্দিন মিরাজ জানান, বৃহস্পতিবার রাতে রাজশাহীর শাহ মখদুম থানা এলাকায় নব্য জেএমবির আমির মাহবুবসহ চার জনকে আটক করে র‌্যাব-৫। আটক আমিরের তথ্যের ভিত্তিতে শাহজাদপুরের উকিলপাড়ায় শুক্রবার ভোর থেকে চলছে অভিযান। তিনি বলেন, ‘জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে আমরা ওই বাড়িটি সাড়ে পাঁচ ঘণ্টা ঘিরে রাখি। হঠাৎ ওই বাড়িটি থেকে বিকট শব্দে ফায়ার হয়। ধারণা করা হচ্ছে বাড়িতে জঙ্গিদের তৈরি বোমাসহ অস্ত্রের মজুদ রয়েছে। অভিযান চলছে। অভিযান শেষে গণমাধ্যমকর্মীদের সার্বিক তথ্য জানানো হবে।’