স্টাফ রিপোর্টার : সাভারে এক নারী শ্রমিককে ধর্ষণের অভিযোগে এক গার্মেন্টস শ্রমিককে আটক করেছে পুলিশ। সকালে সাভারের উলাইলের কর্ণপাড়া এলাকার ভাড়া বাড়ি থেকে তাকে আটক করে সাভার মডেল থানা পুলিশ। আটক ধর্ষণকারীর নাম নাহিদ মিয়া (৩০) সে কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট থানার রুটি গ্রামের ইয়াসিন আলীর ছেলে।

পুলিশ জানায়,ধর্ষণের শিকার ওই নারী সাভারের মজিদপুর ভাড়া বাড়িতে থেকে উলাইলের কর্ণপাড়া এলাকায় ডেনিটেক্স গার্মেন্টস চাকুরী করতেন। পরে সেখানে নাহিদ মিয়া নামের আরেক পোশাক শ্রমিকের সাথে তার পরিচয় হয়। এরপর বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই গার্মেন্টস ওই নারীকে বিভিন্ন স্থানে নিয়ে একাধীকবার ধর্ষণ করে আসছিলো।

 

পরে আবারও আজ সকালে ওই নারীকে ধর্ষণ করলে ওই নারী সাভার মডেল থানায় ধর্ষণকারীকে প্রধান আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করলে পুলিশ কর্ণপাড়া এলাকা থেকে ধর্ষণকারীকে আটক করে। ধর্ষণের শিকার নারীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করেছে পুলিশ।

অন্যদিকে সাভারের রাজাশন এলাকায় এক নারীকে ১৫ দিন আটকিয়ে একটি বাড়িতে চার যুবকের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ধর্ষণকারীরা ওই নারীকে শরীরের বিভিন্নস্থানে সিগারেটের ছ্যাঁকা দিয়েছে। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রচেষ্টা চলছে। বিষয়টি নিশিচত করে সাভার মডেল থানার ওসি তদন্ত সাইফুল ইসলাম বলেন,তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।