1. dailyfulki04@gmail.com : fulkinews24 :
শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৪২ অপরাহ্ন
করোনা সর্বশেষ :

করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত ২১৮ জনের মধ্যে পুরুষ ১৩৪ জন এবং নারী ৮৪ জন তাদের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে ১৫৬ জন এবং বেসরকারি হাসপাতালে ৪৯ জনের মৃত্যু হয়

ফেনসিডিল নিয়ে দেড় লক্ষাধিক টাকা বিল রেলকর্মীর, দাবি বিক্রেতার

  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ২৩ আগস্ট, ২০২১

 রাজশাহী সংবাদদাতা : রাজশাহী পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য (আরএনবি) মো. নূরে আলমের বিরুদ্ধে ফেনসিডিল সেবনের অভিযোগ উঠেছে। এবার অভিযোগ করেছেন স্বয়ং মাদক কারবারি। তার দাবি, ওই নিরাপত্তাকর্মী তার কাছ থেকে দেড় বছরে বাকিতে এক লাখ ৬০ হাজার টাকার ফেনসিডিল নিয়েছেন। এখনো বাকি ৫০ হাজার টাকা। রেলওয়ে কর্মকর্তাদের বক্তব্য, ওই কর্মীর বিরুদ্ধে এর আগেও মাদকসেবনের অভিযোগ ওঠে। ডোপ টেস্টে আগে পজিটিভও হয়েছেন তিনি।

নগরীর মতিহার থানার মিজানের মোড় এলাকার মাদক কারবারি মো. মজিবুল হক জাগো নিউজকে এ তথ্য জানান। অভিযোগ অস্বীকার করেছেন নূরে আলম।

মাদক ব্যবসায়ী মজিবুল হকের ভাষ্যমতে, একসময় তার রেলওয়ে স্টেশনে চলাফেরা ছিল। সেই সূত্রে নূর আলমের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি হয়। নূরে আলম একাধিকবার তাকে আর্থিকভাবে সহায়তাও করেছেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে মাদকাসক্ত। একসময় বেকারত্বের কারণে তিনিও (মজিবুল হক) মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন।

মজিবুল হক জাগো নিউজকে বলেন, নূর আলম আমাকে বেশ কয়েকবার আর্থিকভাবে সহায়তা করেছিলেন। সে কারণে তাকে বাকিতে মাদকসেবনের সুবিধা দিতাম। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে তিনি টাকা আটকে দেওয়ায় আমি বেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়ি। প্রায় দেড় বছর ধরে তিনি আমার কাছে বিভিন্ন সময় বাকিতে মাদকসেবন করে এক লাখ ৬০ হাজার টাকা আটকে দেন।

‘এ ঘটনার পর থেকে তার সঙ্গে আমার প্রায় এক বছর ধরে সম্পর্কের অবনতি ঘটে। মাঝে মধ্যে টাকার জন্য আমি তাকে চাপ দিতে থাকি। এমনকি অফিস ও সাংবাদিকদের জানিয়ে দেওয়ার ভয় দেখাই। এতে তিনদিন আগে (২০ আগস্ট) তিনি আমাকে এক লাখ ১০ হাজার টাকা দিয়ে যান এবং বাকি ৫০ হাজার টাকা মাফ করে দিতে বলেন।’

অভিযোগ অস্বীকার করেছেন নূর আলম। তিনি জাগো নিউজকে বলেন, আমার বিরুদ্ধে কেউ শত্রুতাবশত এসব মিথ্যা কথা রটাচ্ছে। এসব কথার কোনো সত্যতা নেই। মজিবুল নামে কোনো ব্যক্তিকে আমি চিনি না।

ডোপ টেস্টের বিষয়ে তিনি বলেন, কর্তৃপক্ষের আদেশ পেলে ডোপ টেস্ট অবশ্যই করবো। ডোপ টেস্টে পজিটিভ প্রমাণিত হলে কর্তৃপক্ষ যা সিদ্ধান্ত দেবেন তা মেনে নেবো। সেক্ষেত্রে আমার বলার কিছু নেই।

আরএনবি সদস্য নূর আলমের বিষয়ে কথা হয় রেলওয়ের আরএনবি চিফ কমান্ড্যান্ট অফিসার আশাবুল ইসলামের সঙ্গে।

তিনি জাগো নিউজকে বলেন, এর আগেও তার বিরুদ্ধে মাদকসেবন ও মাদকের সঙ্গে সম্পৃক্ততার অভিযোগ উঠেছিল। ডোপ টেস্টে পজিটিভও আসে। এমন অভিযোগ উঠে থাকলে আবারও ডোপ টেস্ট করানো হবে। অভিযোগের প্রমাণ মিললে তার বিরুদ্ধে তদন্তের পরিপ্রেক্ষিতে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) নগর মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দুস জাগো নিউজকে বলেন, উনাকে এখন থেকে নজরদারিতে রাখা হবে। যদি মাদকের সঙ্গে তার সম্পৃক্ততা পাওয়া যায় তাহলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © FulkiNews24
Go to Fulki TV